‘জয় বাংলা’কে জাতীয় স্লোগান করা উচিত: ডেপুটি স্পিকার

নিজস্ব প্রতিবেদক:
‘জয় বাংলা’কে জাতীয় স্লোগান করা উচিত বলে মন্তব্য করেছেন জাতীয় সংসদের ডেপুটি স্পিকার এ্যাডভোকেট ফজলে রাব্বি মিয়া।

মঙ্গলবার জাতীয় সংসদে তিনি এই আহ্বান জানান।

স্পিকার আরো বলেন, প্রত্যেক ব্যক্তিকে ‘জয় বাংলা’ বলতে হবে—জাতীয় সংসদে এমন একটি সর্বসম্মত সিদ্ধান্ত প্রস্তাব আনার দরকার বলে আমি মনে করি।

রাষ্ট্রপতির ভাষণের ওপর আনা ধন্যবাদ প্রস্তাবের আলোচনায় অংশ নিয়ে সরকারি দলের সাংসদ আব্দুল মতিন খসরু ‘জয় বাংলা’কে জাতীয় স্লোগান করা নিয়ে উচ্চ আদালতে রিটের প্রসঙ্গ টেনে বলেন, সরকারি অনেক কর্মকর্তা ‘জয় বাংলা’ বলতে জড়তায় ভোগেন।

আব্দুল মতিনের বক্তব্য শেষে স্পিকারের আসনে থাকা ফজলে রাব্বী মিয়া বলেন, ‘আমরা জয় বাংলা স্লোগান দিয়ে যুদ্ধে নেমেছি। জয় বাংলা স্লোগান দিয়ে যুদ্ধ জয় করে আমরা দেশে ফিরেছি। সুতরাং কে বলল আর কে বলল না, তাতে কিছু যায়–আসে না।

আমি আমার সকল শ্রদ্ধেয় সংসদ সদস্যদের কাছে একজন মুক্তিযোদ্ধা হিসেবে বিনয়ের সঙ্গে আবেদন রাখতে চাই এ বলে যে, এই পার্লামেন্টে একটা সিদ্ধান্ত প্রস্তাবে সর্বসম্মতভাবে পাশ হোক। যে আইনের মাধ্যমে সকল ব্যক্তিকে জয় বাংলা বলতেই হবে।

আব্দুল মতিন খসরু তাঁর বক্তব্যের একপর্যায়ে ‘ম্যাডাম স্পিকার’ সম্বোধন করেন। এ সময় স্পিকারের আসনে ছিলেন ফজলে রাব্বী মিয়া। তিনি কিছুটা ক্ষোভের সুরে বলেন, ‘আই অ্যাম নট ম্যাডাম স্পিকার’। পরে আব্দুল মতিন তাঁর এই সম্ভোধনের জন্য দুঃখ প্রকাশ করেন। ডেপুটি স্পিকার বলেন, ‘আই অ্যাম রিয়েলি সরি, ইউ ক্যান নট স্পিক ইন দিস ওয়ে।’

আব্দুল মতিন খসরু তাঁর বক্তব্যে বলেন, বুয়েটে একজন ছাত্রকে মেধাবী হত্যাকারীরা হত্যা করল। তাঁকে পানি পর্যন্ত দেওয়া হয়নি। এ ঘটনা লজ্জাজনক। প্রতিনিয়ত নারীর প্রতি নৃশংসতা হচ্ছে। এসব প্রতিরোধের উপায় বের করতে হবে। তিনি সাক্ষ্য আইন সংশোধন করে ঘটনার ভিডিওকে প্রমাণ হিসেবে গ্রহণ করার বিধান যুক্ত করার দাবি জানান। #