দুর্যোগে সাহস হাড়াবেন না, প্রয়োজনে হাত বাড়িয়ে দিন : ত্রাণ প্রতিমন্ত্রী এনামুর রহমান

উন্নয়ন ডেস্ক –
অতিমারী করোনাভাইরাসে এমনিতেই বিপর্যস্ত গোটা বাংলাদেশ। তার উপর মরার উপর খরার ঘা হিসেবে ঘূর্ণিঝড়, বন্যার মতো নানান ধরনের প্রাকৃতিক দুর্যোগ মোকাবেলা করছি আমরা। যা কেবল মাত্র সফলভাবে সম্ভব হয়েছে মানবতার জননী, বঙ্গবন্ধু কন্যা, জননেত্রী শেখ হাসিনার সদয় পরামর্শ ও নির্দেশনা আর দৃঢ় নেতৃত্বে।
এবার আমাদের মিশন পুনর্বাসন ও মানবিক সহযোগিতা নিয়ে বন্যার্তদের পাশে দাঁড়ানো।
আপনারা জানেন,ভারি বর্ষণ ও পাহাড়ি ঢলে নদ-নদীর পানি বাড়তে শুরু করায় দেশের বিভিন্ন এলাকার নিম্নাঞ্চল নতুন করে প্লাবিত হয়েছে।
বানের জলে ভেসে যাওয়া ঘরবাড়ি, মূল্যবান সম্পদ, তলিয়ে যাওয়া ফসলের জমি। সবমিলিয়ে পানিবন্দি মানুষরা রয়েছেন নিদারুণ কষ্টে। এমন পরিস্থিতিতে মারাত্মক ঝুঁকির মধ্যে বন্যার্ত মানুষদের ঠেলে দিয়েছে কোভিড-১৯ নামের অদৃশ্য এক ভাইরাস।
সম্মানিত প্রিয় দেশবাসী। আপনারা জেনে খুশি হবেন, হাজার বছরের শ্রেষ্ঠ বাঙালি, বাংলাদেশের মহান স্থপতি, জাতির জনক, বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের সুযোগ্য কন্যা, মানবতার জননী, জননেত্রী শেখ হাসিনা আপনাদের বিষয়ে সার্বক্ষণিক খোঁজখবর রাখছেন।
ইতিমধ্যে বন্যা কবলিত এলাকা গুলোতে পৌঁছে গেছে মানবিক সহায়তা হিসেবে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার বিশেষ উপহার। বন্যার্তদের আশ্রয় কেন্দ্রে নেয়া, চিকিৎসা,নগদ আর্থিক সহায়তা, খাদ্য এবং পুনর্বাসন কর্মসূচি নিয়ে আপনাদের পাশে রয়েছে দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণ মন্ত্রণালয়।
আমি ব্যক্তিগতভাবে বন্যাকবলিত প্রতিটি জেলা এবং উপজেলায় খোঁজখবর নিচ্ছি। আমাদের হাতে পর্যাপ্ত ত্রাণ রয়েছে। করোনা কালে যেখানে সীমিত পরিসরে অফিস আদালত চলছে, সেখানে আমরা স্বাভাবিক সময়ের চাইতেও অতিরিক্ত সময় ব্যয় করে নিয়োজিত রয়েছি আপনাদের কল্যাণে।
আর প্রতিটি মুহূর্তই আমাদের কার্যক্রম মনিটরিং করছেন, আপনাদের ভালোবাসা ও মমতার নেত্রী, জননেত্রী শেখ হাসিনা।
তাই দুর্যোগে সাহস হারাবেন না। প্রয়োজনে হাতটি বাড়িয়ে দিন। দেখবেন, বন্ধু হয়ে আমরাই আছি আপনার পাশে। আপনাদের সেবায়। সব সময়,সর্বত্রই। জননেত্রী শেখ হাসিনার সরকার মানেই তো আপনার সরকার।
দুর্যোগ ও ত্রাণ প্রতিমন্ত্রী এনামুর রহমান এম পি-র ফেসবুক থেকে সংগৃহীত