জুন ১৩, ২০২৪

আমাদের সম্পর্কে আরো জানুনঃ

পোশাক শ্রমিকদের স্বাস্থ্য সুরক্ষায় যুক্তরাজ্যের তহবিল গঠন

উন্নয়ন ডেস্ক –

করোনা মহামারীতে উন্নয়নশীল দেশের শ্রমিকদের স্বাস্থ্য সুরক্ষা নিশ্চিতে যুক্তরাজ্য সরকার শুক্রবার ৬ দশমিক ৮৫ মিলিয়ন পাউন্ডের তহবিল গঠন করেছে। বাংলাদেশের তৈরি পোশাক খাতে কর্মরত শ্রমিকদের স্বাস্থ্য সুরক্ষা ও স্বাস্থ্য সংক্রান্ত তথ্যপ্রাপ্তিতে এ অর্থ ব্যয় করা হবে। বাংলাদেশ ছাড়াও এ তহবিল থেকে সহায়তা পাবে মিয়ানমার, কেনিয়া, উগান্ডা, ইথিওপিয়া, তানজানিয়া, রুয়ান্ডা ও ঘানা। শনিবার ঢাকার যুক্তরাজ্য দূতাবাস এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানিয়েছে।

সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়, যুক্তরাজ্য তার ২০ শতাংশ খাদ্য এবং পানীয় উন্নয়নশীল দেশগুলো থেকে আমদানি করে। করোনাভাইরাস মহামারীর কারণে এই সাপ্লাই চেইনের অনেক কারখানা ও খামার অস্থায়ীভাবে বন্ধ করতে বাধ্য হয়েছে। গঠিত তহবিলের মাধ্যমে মার্কস অ্যান্ড স্পেন্সার, টেকসো, সেইন্সবুরিস, মরিসন্স, ওয়েটরোজের মতো যুক্তরাজ্যের বড় ব্যবসা প্রতিষ্ঠানের সাপ্লাই চেইনে থাকা উন্নয়নশীল দেশের শ্রমিকদের সহায়তা করা হবে।

এতে আরও বলা হয়েছে, মার্কস অ্যান্ড স্পেন্সারের নিজস্ব ব্রান্ডের তৈরি পোশাক উৎপাদনে কর্মরত ৮০ হাজার শ্রমিকের স্বাস্থ্যসেবা উন্নয়নে একসঙ্গে কাজ করবে মার্কস অ্যান্ড স্পেন্সার ও কেয়ার। এ কর্মসূচি কমিউনিটি স্বাস্থ্যসেবা ব্যবস্থাকে শক্তিশালী করবে এবং শ্রমিকদের নিজেদের ও তাদের পরিবারকে সুরক্ষিত রাখতে সহায়তা করবে। বাংলাদেশের ৩ লাখ দরিদ্র মানুষ এর সুবিধা ভোগ করতে পারবে বলে আশা করা হচ্ছে।

তহবিলের বিষয়ে যুক্তরাজ্যের আন্তর্জাতিক বিষয়ক উন্নয়ন সম্পাদক অ্যানি-মেরি ট্র্যাভেলিয়ান বলেন, ব্রিটেনের লোকেরা বিশ্বব্যাপী উৎপাদিত সাশ্রয়ী মূল্যের এবং উচ্চমানের পণ্য ক্রয় চালিয়ে যেতে পারে, তা আমরা নিশ্চিত করতে চাই। এই নতুন তহবিল যুক্তরাজ্যের ভোক্তাদের জন্য অত্যাবশ্যক সরবরাহ চেইনগুলোকে শক্তিশালী করবে এবং উন্নয়নশীল দেশগুলোর শ্রমিকদের সহায়তা করবে।

মার্কস অ্যান্ড স্পেন্সারের ইথিক্যাল ট্রেডিংয়োর প্রধান ফিয়োনা স্যাডলার বলেন, ইথিক্যাল ফ্যাশনে এমএন্ডএস দৃঢ় প্রতিজ্ঞ। সহযোগী উদ্যোগের মাধ্যমে আমাদের সাপ্লাই চেইনে থাকা শ্রমিকদের জীবনমান উন্নয়নে প্রতিশ্রুতিবদ্ধ।

Facebook
Twitter
LinkedIn
Pinterest
Reddit