জুলাই ১৭, ২০২৪

আমাদের সম্পর্কে আরো জানুনঃ

প্রবাসী বাংলাদেশিদের জোটবদ্ধতা জরুরি

নিউইয়র্ক সিটি মেয়র এরিক এডামস বলেছেন, ‘এই সিটিতে কমপক্ষে ৫০ হাজার বাংলাদেশি রয়েছেন যারা ভোটার হিসেবে তালিকাভুক্ত হওয়ার যোগ্য। এই বিরাটসংখ্যক বাংলাদেশি যদি জোটবদ্ধ হতে পারেন- তাহলে তারা যে কোনো ব্যালটযুদ্ধে প্রার্থীদের জয়-পরাজয় নির্ধারণে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখতে পারবেন।’ গত ১২ মে রাতে ‘রাইজ আপ নিউইয়র্ক সিটি’ নামক বাংলাদেশিদের একটি রাজনৈতিক মোর্চার দ্বিতীয় বার্ষিক লিডারশিপ সামিট’-এ বক্তব্য দেওয়ার সময় সিটি মেয়র আরও বলেন, ‘আমার প্রশাসনে গুরুত্বপূর্ণ বেশ কজন রয়েছেন বাংলাদেশি আমেরিকান। তারা নিষ্ঠার সঙ্গে দায়িত্ব পালন করছেন এবং তাদের মাধ্যমেই আমি বাংলাদেশিদের কর্মনিষ্ঠা সম্পর্কে অনেক বেশি ধারণা পাচ্ছি। তাদের মতো মানুষের সংখ্যা যত বাড়বে তত উপকৃত হবে এই সিটি।’ ‘দ্য রাইজ আপ নিউইয়র্ক’-এর অন্যতম প্রতিষ্ঠাতা বাংলাদেশি-আমেরিকান শামসুল হক সামিটের শুরুতে দেওয়া বক্তব্যে উল্লেখ করেন, এই শহরের অধিবাসী বাঙালির অধিকারবোধ জাগ্রতকরণ, ঐক্যের গুরুত্ব, ভোট প্রয়োগের কল্যাণ, সমসাময়িক তথ্য সবার কাছে পৌঁছে দেওয়ার দায়িত্বটি নিরলসভাবে পালন করছে ‘দ্য রাইজ আপ নিউইয়র্ক’। সে সূত্রেই দ্বিতীয় সামিটে সবাইকে আমন্ত্রণ জানিয়েছি। সম্প্রীতি, সৌহার্দ এবং পারস্পরিক সহযোগিতার মাধ্যমে অধিকার আদায়ের প্রচেষ্টার অগ্রযাত্রায় রাইজ আপ নিউইয়র্কের কর্মকান্ড এরই মধ্যে কম্যুনিটিতে সুফল বয়ে এনেছে। শামসুল হক উল্লেখ করেন, এখন সময় হচ্ছে সবাইকে ঐক্যবদ্ধ হয়ে যে কোনো নির্বাচনে মাঠে নামা।

ব্যালট যুদ্ধে অবতীর্ণ হওয়ার অর্থই হচ্ছে কম্যুনিটি ন্যায্য হিস্যা আদায়ের পথ সুগম করা। যে কম্যুনিটির মানুষ ব্যালট যুদ্ধে সরব থাকেন, তাদের প্রতি সংশ্লিষ্ট প্রশাসনের নজর থাকে বেশি। অনুষ্ঠানে সিটি মেয়র এরিক এডামসকে দ্য রাইজ আপ নিউইয়র্ক সিটির পক্ষ থেকে ‘বাংলাদেশের জাতীয় স্মৃতি সৌধ’র কপি উপহার দেওয়া হয়।

Facebook
Twitter
LinkedIn
Pinterest
Reddit