জুলাই ১৭, ২০২৪

আমাদের সম্পর্কে আরো জানুনঃ

বিএসপিভুক্ত পত্রিকাগুলোকে প্রণোদনায় অন্তর্ভুক্ত করায় প্রধানমন্ত্রী, তথ্যমন্ত্রী, শিল্পমন্ত্রীকে ধন্যবাদ ও কৃতজ্ঞতা জানিয়ে সংগঠনকে ঐক্যবদ্ধ করার আহ্বান

বাংলাদেশ সংবাদপত্র পরিষদ বিএসপির সভায় আলোচনায় নেতৃবৃন্দ বিএসপিভুক্ত সংবাদপত্রগুলোকে প্রণোদনায় তালিকাভুক্ত করায় দেশরত প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা, শিল্পমন্ত্রী এ্যাডভোকেট নুরুল মজিদ মাহমুদ রহমান, তথ্যমন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ, বাংলাদেশ ব্যাংকের গভর্নর ফজলে কবীরকে ধন্যবাদ ও কৃতজ্ঞতা জানান। করোনাকালীন দুর্যোগে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ঘোষিদ ক্ষুদ্র ও মাঝারি শিল্পের জন্য ২০ হাজার কোটি টাকার প্রণোদনা ঘোষণা করা হয়। কিন্তু সেখানে সংবাদপত্র যুক্ত ছিল না। বিএসপির আবেদনের প্রেক্ষিতে সরকার প্রণোদনা প্যাকেজে বিএসপিভুক্ত পত্রিকাগুলোকে অন্তর্ভুক্ত করে বাংলাদেশ ব্যাংক বিশেষ পরিপত্র প্রদান করে। এটা বিএসপির জন্য বড় ধরনের প্রাপ্তি।
বিএসপির সভাপতি মো. শাহজালালের সভাপতিত্বে নির্বাহী কমিরি সভা সংগঠনের কার্যালয় ৮৫, নয়াপল্টনে অনুষ্ঠিত হয়। সভায় স্বাগত বক্তব্য রাখেন সংগঠনের সাধারণ সম্পাদক এম.জি. কিবরিয়া চৌধুরী। সভায় বিএসপিভুক্ত পত্রিকাগুলোকে সহজ শর্তে এবং দ্রুততার সঙ্গে সরকার ঘোষিত প্রণোদনার আওতায় স্বল্পসুদে ঋণ বরাদ্দের জন্য বাংলাদেশ ব্যাংক ও সংশ্লিষ্ট ব্যাংকসমূহকে অনুরোধ জানানো হয়।
সভায় সংগঠনের বিভিন্ন অর্জন নিয়ে আলোচনা হয়। সংগঠনের নেতৃত্বে সরকারি বিজ্ঞাপনের সর্বনিম্ন রেট ৩৫০ টাকা নির্ধারণ, তথ্য মন্ত্রণালয়ের মাধ্যমে বিভিন্ন মন্ত্রণালয়ের ক্রোড়পত্র বণ্টন, তথ্য মন্ত্রণালয় থেকে বিএসপির স্বীকৃতির বিষয় নিয়ে সন্তোষ প্রকাশ করা হয়। সভায় সংগঠনের পরিধি বৃদ্ধিসহ সংবাদপত্র মালিকদের ঐক্যবদ্ধতা কামনা করা হয়। যত্রতত্র সংবাদপত্র ও সাংবাদিকদের নামসর্বস্ব সংগঠনের ব্যানার নিয়ে সমালোচনা করা হয়।
সভায় উপস্থিত ছিলেন- নির্বাহী কমিটির মুক্তিযোদ্ধা মো. শাহজালাল, সফিকুল ইসলাম ইউনুস, কামরুজ্জামান জিয়া, শেখ মঞ্জুর বারী মঞ্জু, রফিক উল্লা সিকদার, মো. জসিমউদ্দন, এবিএম সেলিম, রবিউল ইসলাম, কাজী আনোয়ার কামাল, মেহরাব হোসেন, নেজামুল হক, ফারুক খানসহ বিভিন্ন বিভাগী শহরের সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদকগণ উপস্থিত ছিলেন।

Facebook
Twitter
LinkedIn
Pinterest
Reddit