রাজপথ কি ইজারা নিয়েছেন, মির্জা ফখরুলকে ওবায়দুল কাদের

উন্নয়ন ডেস্ক –

বিএনপিকে রাজপথে মোকাবিলা করার ঘোষণা দিয়েছেন আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক, সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের।

তিনি বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীরকে উদ্দেশ্যে করে বলেছেন, “শেখ হাসিনাকে হত্যার হুমকি দেবেন, অশ্রাব্য ভাষায় গালি গালাজ করবেন, রাজপথ কি ইজারা নিয়েছেন? আমরা রাজপথে আছি। এই অপবাদের প্রতিশোধ আপনাদের সমুচিত জবাব দেব। শেখ হাসিনাকে হত্যা করার হুমকি দিচ্ছেন আমরা ঘরে বসে আঙুল চুষব। আমরা রাজপথে আছি, রাজপথে থাকব।”

স্পিকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরীর সভাপতিত্বে একাদশ জাতীয় সংসদ ১৮তম (বাজেট) অধিবেশনের বুধবারের বৈঠকে পদ্মা সেতু নির্মাণে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে ধন্যবাদ জানাতে আনা প্রস্তাব আলোচনায় অংশ নিয়ে তিনি এসব কথা বলেন।
আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক বলেন, ‌‘পদ্মা সেতু আমাদের মর্যাদার প্রতীক। অপমানের প্রতিশোধের প্রতীক। সবাইকে অপমান করেছে, গোটা জাতিকে অপমান করেছে, অসম্মান করেছে। এই সেতু আমি দেখি অপমানের প্রতিশোধ।’

তিনি বলেন, ‘এই সেতুর নাম সারা বাংলাদেশে মানুষ শেখ হাসিনার নামে পদ্মা সেতু করার দাবি করেছিল।’ এসময় সংসদ নেতা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে দেখিয় বলেন, ‘আমরা অকৃতজ্ঞ জাতি হয়ে যাব যদি আপনাকে এই মর্যাদা থেকে দূরে সরিয়ে রাখি। আমি এখনো বলছি, সামারি পাঠিয়েছি মন্ত্রণালয় থেকে আপনি নাকোচ করে দিয়েছেন। সেদিন আমি খুব কষ্ট পেয়েছি। যাক আমি কষ্ট পেয়েছি তারপরও আমি মনে করি এখন কী করব? কাগজে লিখা নাম ছিঁড়ে যাবে, পাথরে লিখা নাম ক্ষয়ে যাবে, হৃদয়ে লিখা নাম রয়ে যাবে। বঙ্গবন্ধু পলিটিক্যাল ইন্ডিপিন্ডেন্সের লিগ্যাসি। তারুণ্যের অর্জনে শেখ হাসিনার যে লিগ্যাসি এটার কোনো মৃত্যু নেই।

ওবায়দুল কাদের আরও বলেন, ‘আমরা তাকে প্রশংসা করতে জানি না, আমরা তাকে গালি গালাজ করি অশ্রাব্য ভাষায়। শেখ হাসিনার অপরাধ- কেন শেখ হাসিনা পদ্মা সেতু নির্মাণ করলেন? শেখ হাসিনার অপরাধ- কেন তিনি মেট্রোরেল নির্মাণ করলেন। কেন তিনি চট্টগ্রামে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান কর্ণফুলি টার্ণেল করছেন? বিএনপি শেখ হাসিনার উন্নয়ন দেখে না, অর্জন দেখে না। তারা দিনের আলোতে আমাবশ্যের অন্ধকার দেখে। তাদের চোখে ঠুলি, তাদের চোখে পড়ে না। আজকে বিদেশিরা বিদেশি পত্রিকায় শেখ হাসিনার প্রশংসা করে। আমরা বাঙালিরা তাকে প্রশংসা করতে জানি না, প্রশংসা করি না। কাজের প্রশংসাও করি না তার।’

বিএনপি মহাসচিবের উদ্দেশ্যে তিনি বলেন, ‘মির্জা ফখরুল সাহেব বারবার অশ্রাব্য ভাষায় কথা বলছেন। অশ্রব্য ভাষায় প্রধানমন্ত্রীকে গালি দিচ্ছেন। আজকে ৭৫ এর হাতিয়ার গর্জে উঠুক আর একবার, এই স্লোগান দিচ্ছেন, বঙ্গবন্ধু কন্যাকে হত্যার হুমকি দিচ্ছেন। আর আমাকে বলছেন আমি ভাষা সংযত করব। আপনাদের কোনো শালীনতা আছে? কীরকম ভাষায় বিএনপি নেতারা টপ টু বটম বক্তৃতা করেন। এই সংসদেও দুই একজন বলে গেলেন।’