র‌্যাবের নজরদারিতে থাকবে বিদেশফেরতরা

নিজস্ব প্রতিবেদক:
বিদেশফেরতরা র‌্যাপিড অ্যাকশন ব্যাটালিয়নের (র‌্যাব) নজরদারিতে থাকবে বলে জানা গেছে। ইতোমধ্যে সরকারের বিভিন্ন সংস্থার পাশাপাশি সংস্থাটি কাজও শুরু করে দিয়েছে। বিদেশফেরতরা যারা হোম কোয়ারেন্টিনের আদেশ মানছেন না, তাদের আইনের আওতায় আনতে প্রয়োজনে ফুলটাইম মাঠে থাকবে বাহিনীটি।

বৃহস্পতিবার (১৯ মার্চ) রাজধানীর বিমানবন্দর এলাকায় র‌্যাব সদর দফতরে সংবাদিকদের সঙ্গে আলাপকালে এমন কথা জানান বাহিনীটির লিগ্যাল অ্যান্ড মিডিয়া উইংয়ের পরিচালক লে. কর্নেল সারওয়ার বিন কাশেম।
বিদেশফেরত নাগরিকদের হোম কোয়ারেন্টিনে থাকা নিশ্চিত করতে মাঠপর্যায়ে র‌্যাবের উদ্যোগের বিষয়ে জানতে চাইলে তিনি বলেন, আমরা এমন কোনো আদেশ এখনো পাইনি। তবে এটি অবশ্যই যৌক্তিক বিষয়, বিদেশফেরত নাগরিকদের অবশ্যই হোম কোয়ারেন্টিনে থাকা উচিত। আমরা এমন আদেশের অপেক্ষায় রয়েছি, আদেশ পেলে সঙ্গে সঙ্গে আমাদের অবস্থান তুলে ধরব। যারা কোয়ারেন্টিনে থাকার আদেশ মানছেন না, তাদের আইনের আওতায় নিয়ে আসা হবে।
অপর এক প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, যারা বিদেশ থেকে এসেছে তাদের পরিসংখ্যান আমাদের কাছে রয়েছে। যারা বিভিন্ন জেলায় ছড়িয়ে পড়েছে পুলিশের পাশাপাশি আমাদেরও নজরদারি রয়েছে। আমরা এখনো অনগ্রাউন্ডে জেল-জরিমানায় যায়নি, কিন্তু তারা নজরদারিতে রয়েছে।
করোনা আতঙ্কের সুযোগে বাজার নিয়ন্ত্রণ ও গুজব প্রতিরোধে র‌্যাব কাজ করছে উল্লেখ করে তিনি বলেন, করোনা আতঙ্কের পরপরই বাজারে মাস্ক-স্যানিটাইজারের দাম বেড়ে গিয়েছিল। আমরা এসব বাড়তি দাম আদায়কারী ব্যবসায়ীদের বিরুদ্ধে মোট সাতটি ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা করে ৪৫ লাখ টাকা জরিমানা করেছি। ভবিষ্যতেও আমাদের এ কার্যক্রম অব্যাহত থাকবে।
এছাড়া সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে বিভিন্ন গুজব ছড়ানোর বিষয়টি গুরুত্বের সঙ্গে নেওয়া হয়েছে। ইতোমধ্যে করোনা নিয়ে গুজব ছড়ানোর দায়ে দুইজনকে গ্রেফতার করা হয়েছে। আরও প্রায় অর্ধশত ব্যক্তি আমাদের নজরদারিতে রয়েছে। দেশজুড়ে র‌্যাবের ১৫টি ব্যাটালিয়ন এলাকাতেই প্রত্যেকের জায়গা থেকে বিষয়গুলো মনিটরিং করছে সাইবার মনিটরিং সেল। আমরা যদি কারো বাড়াবাড়ি দেখি, অবশ্যই তাদেরকে গ্রেফতার করে আইনের আওতায় নিয়ে আসা হবে।
বাজার সহনীয় রাখতে র‌্যাব কাজ করবে কি-না জানতে চাইলে তিনি বলেন, পৃথিবীর অন্যান্য দেশে করোনা মোকাববিলায় ‘লক ডাউন’ করে দেওয়া হয়েছে। যে কারণে মানুষের মনে ভয় কাজ করছে। কিন্তু আমাদের সে ধরনের পরিস্থিতির সৃষ্টি হয়নি। বাজার এখনো নিয়ন্ত্রণে রয়েছে। সবাই যেন শান্ত থাকেন, বাড়তি কেনাকাটা করে ঘরে স্টক করার দরকার নেই।
বাজার নিয়ন্ত্রণসহ সরকারের যেকোনো আদেশ বাস্তবায়ন করতে র‌্যাব প্রস্তুত রয়েছে বলেও জানান তিনি। #