মে ২৭, ২০২৪

আমাদের সম্পর্কে আরো জানুনঃ

সমাজসেবাকে আরো গতিশীল করতে চায় সরকার

নিজস্ব প্রতিবেদকঃ
আজ রাজধানীর ইম্পালস হাসপাতাল কর্তৃক আয়োজিত “ইম্পালস পেইনলেস ডেলিভারি” শীর্ষক তিনদিনব্যাপী এক সেমিনারের উদবোধন করেন সমাজকল্যাণমন্ত্রী নুরুজ্জামান আহমেদ এমপি।
মন্ত্রী আয়ারল্যান্ড, যুক্তরাজ্য, সিঙ্গাপুরসহ দুনিয়ার বিভিন্ন দেশে চলমান নারীদের ঝুঁকিপূর্ণ সিজারিয়ান প্রসবের বদলে বাংলাদেশেও প্রথমবারের মতন “নিরাপদ ও ব্যথাবিহীন প্রসবকার্যক্রম” প্রবর্তনকারী ইম্পালস হাসপাতালের এমন যুগান্তকারী উদ্যোগের ভূয়সী প্রশংসা করেন। বর্তমান সরকারের উদ্যোগের ফলে এদেশে সন্তানপ্রসবকালীন মাতৃমৃত্যু ও নবজাতকের অকাল মৃত্যুহারের আধিক্য অনেক কমে এসেছে বলেও তিনি উল্লেখ করেন।
ইম্পালস হাসপাতালের ব্যথাবিহীন প্রসবের পদ্ধতিকে সমাজসেবা কার্যক্রমের আওতায় আনা যায় কিনা, তা সক্রিয়ভাবে চিন্তাভাবনার আশ্বাস দিয়ে মন্ত্রী বিষয়টি প্রধানমন্ত্রীর নজরেও আনবেন বলে জানান। ঝুকিপূর্ণ সিজারিয়ান অপারেশনের প্রচলন উদ্বেগজনক হারে বাড়ায় উদ্বেগপ্রকাশ করে তিনি বলেন, আধুনিক যুগেও নিরাপদ সন্তানপ্রসব আমাদের দেশে অনেকবড় একটি সমস্যা। সিজারিয়ানের মাধ্যমে একটি পরিবারের কেবল আর্থিক ক্ষতিই হয় না, প্রসূতি বা মায়ের অনেক স্বাস্থ্যসমস্যাসহ জীবনঝুঁকিও দেখা দেয়। তাই পেইনলেস নরমাল ডেলিভারির সাফল্য এদেশের চিকিৎসাসেবায় নবদিগন্তের সূচনা করবে তিনি আশাবাদ ব্যক্ত করেন।
প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা দেশের সামগ্রিক উন্নয়নের পাশাপাশি স্বাস্থ্যসেবার ব্যাপারেও অত্যন্ত মনোযোগী বলেই ডেঙ্গু, চিকুনগুনিয়ার প্রাদুর্ভাব ঠেকানো সম্ভব হয়েছে বলে উল্লেখ করে তিনি বলেন, ‘পেইনলেস নরমাল ডেলিভারি’ চিকিৎসাপদ্ধতির বিষয়টি প্রধানমন্ত্রীর নজরে এলে তিনি অভিভূত হবে ন বলেই আমার বিশ্বাস।
সমাজকল্যাণমন্ত্রী পেইনলেস নরমাল ডেলিভারির ব্যাপারে আমাদের দেশের মায়েদের সচেতনসৃষ্টি এবং সাধারণ মানুষের মাঝে ব্যাপক প্রচারের প্রয়োজনীয়তার ওপর জোর দেন। জনাব নুরুজ্জামান ধীরে-ধীরে জেলাপর্যায়ে এই চিকিৎসাপদ্ধতির সম্প্রসারণে উদ্যোগী হতে ইমপাল্স হাসপাতাল কর্তৃপক্ষের প্রতি আহবান জানিয়ে বলেন, এ ধরণের স্বাস্থ্যসেবা কেবল রাজধানীকেন্দ্রিক থাকুক, সেটা কাম্য নয়।
১৫ থেকে ১৭ ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত সেমিনারের উদবোধনীতে মূলপ্রবন্ধ পাঠ করে আয়ারল্যান্ডের University Hospital Waterford এর কন্সাল্টেন্ট অধ্যাপক ডা জুন্নুরাইন জায়গীরদার এবং অন্যান্যের মধ্যে বক্তৃতা করেন আয়ারল্যান্ডের এর অধ্যাপক ডা কাজি নাফিজা হামিদ, সিঙ্গাপুরের এর অধ্যাপক ডা তৌফিক ইসলাম, এ বছর একুশে পদকপ্রাপ্ত এর আবিষ্কারক অধ্যাপক ডা সায়েবা আক্তার, জাতীয় প্রেসক্লাবের সাধারণ সম্পাদক ফরিদা ইয়াসমিন, হাসপাতালের ব্যাপস্থাপনা পরিচালক ডা জহির আল আলামিন প্রমুখ।

Facebook
Twitter
LinkedIn
Pinterest
Reddit